রোববার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

| ৯ আশ্বিন ১৪২৯

KSRM
মহানগর নিউজ :: Mohanagar News

প্রকাশের সময়:
১৬:৫৬, ১৪ আগস্ট ২০২২

চবি প্রতিনিধি

চবি ভর্তি যুদ্ধে পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা, চলবে ৯ জোড়া শাটল  

প্রকাশের সময়: ১৬:৫৬, ১৪ আগস্ট ২০২২

চবি প্রতিনিধি

চবি ভর্তি যুদ্ধে পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা, চলবে ৯ জোড়া শাটল  

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথমবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় ৫ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

পুলিশ, র‌্যাব, ডিবিসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা নির্ধারিত পোশাক ও সিভিল পোশাকে নিয়োজিত থাকবে প্রায় ৭ শতাধিক নিরাপত্তাকর্মী। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনসিসি, রোভার স্কাউট, ও নিরাপত্তা দফতরের সদস্যরাও সার্বক্ষণিক নিয়োজিত থাকবেন।

রোববার (১৪ আগস্ট) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অফিসে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান চবি প্রক্টর অধ্যাপক ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়া। 

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, আগামী ১৬ আগস্ট থেকে শুরু হতে যাচ্ছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা। ওইদিন ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার মধ্য দিয়ে শুরু হবে চবির ভর্তিযুদ্ধ। চলবে ২৪ আগস্ট পর্যন্ত।

ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষে মহিলা অভিভাবকদের জন্য চারটি ছাত্রী হলে বিশ্রামাগার, অস্থায়ী বাথরুম ও বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া ক্যাম্পাসের ভেতর অস্থায়ী খাবারের দোকান বসানো ও পোস্টারিং নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সেই সাথে সকল প্রকার র‌্যাগিং নিষিদ্ধ করা হয়েছে। 

আগের মতো এবারও বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে গাড়ি ভাড়া ও হোটেলগুলোতে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের ব্যাপারে কঠিন পদক্ষেপ নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। অতিরিক্ত টাকা আদায় করা হলে সরাসরি প্রক্টর অফিসে অভিযোগ জানাতে বলা হয়েছে। শহর থেকে ক্যাম্পাস পর্যন্ত প্রতিটি জায়গায় পুলিশ মোতায়েন থাকবে, যাতে ভর্তিচ্ছুরা কোনো রকম সমস্যায় না পড়ে।

এবার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষ (সম্মান) ভর্তি পরীক্ষায় চার ইউনিট ও দুই উপ-ইউনিটে ৪ হাজার ৯২৬টি আসনের জন্য চূড়ান্তভাবে আবেদন করেছেন ১ লাখ ৪৩ হাজার ৭২৭ জন শিক্ষার্থী। সে হিসাবে প্রতি আসনের বিপরীতে লড়বেন প্রায় ২৯ জন শিক্ষার্থী।

এর মধ্যে ‘এ’ ইউনিটে সকাল ও বিকাল দুই শিফটে ২৭ হাজার ৫৩ জন করে পরীক্ষা দিবেন মোট ৫৪ হাজার ১০৬ জন, ‘বি’ ইউনিটে সকাল শিফটে ১৭ হাজার ৮৯০ জন ও বিকাল শিফটে ১৭ হাজার ৮৮৯ জন করে মোট ৩৫ হাজার ৭৭৯ জন, ‘সি’ ইউনিটে সকাল শিফটে ১১ হাজার ৬০ জন, ও সমন্বিত ‘ডি’ ইউনিটে সকাল ও বিকাল দুই শিফটে ১৯ হাজার ৬৯৬ জন করে মোট ৩৯ হাজার ৩৯২ জন ভর্তিচ্ছু পরীক্ষা দিবেন। এছাড়া উপ-ইউনিট দুটির মধ্যে ‘বি ১’ ইউনিটে পরীক্ষা দিবেন ১ হাজার ৫৭৯ জন ও ‘ডি ১’ ইউনিটে ১ হাজার ৮১১ জন প্রতিযোগী পরীক্ষা দিবেন। 

ভর্তি পরীক্ষার সময়সূচি

এবারে ভর্তি পরীক্ষা এ, বি, সি ও ডি ইউনিটের পরীক্ষা দুই শিফটে অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিটি ইউনিটের প্রথম শিফটের পরীক্ষায় কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটের মধ্যে, ওএমআর ফরম বিতরণ হবে ১০টা ১৫ মিনিটে, প্রশ্নপত্র প্রদান করা হবে সকাল ১১টায় এবং পরীক্ষা শেষ হবে দুপুর ১২টায়। 

দ্বিতীয় শিফটের পরীক্ষায় কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে দুপুর ২টা ১৫ মিনিটের মধ্যে ওএমআর ফরম বিতরণ হবে ২টা ৪৫ মিনিটে, প্রশ্নপত্র প্রদান করা হবে ৩টা ৩০ মিনিটে এবং পরীক্ষা শেষ হবে বিকাল ৪টা ৩০ মিনিটে।

তবে, ‘ডি ১’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে দুপুর ১টা ৪৫ মিনিটে, ওএমআর বিতরণ করা হবে ২টা ১৫ মিনিটে, প্রশ্নপত্র প্রদান করা হবে ৩টায় এবং পরীক্ষা শেষ হবে বিকাল ৪টায়। 

১৬ আগস্ট দুই শিফটে ‘এ’ ইউনিট, ১৯ আগস্ট ‘সি’ ইউনিট, ২০ আগস্ট ‘বি’ ইউনিট, ২২ আগস্ট ‘ডি’ ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া ২৪ আগস্ট সকালে উপ-ইউনিট ‘বি-১’ ও একই দিন বিকেলে ‘ডি-১’ ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

চলবে ৯ জোড়া শাটল

এবারের ভর্তি পরীক্ষায় শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের যাতায়াতের সুবিধার্থে প্রতিদিন ৯ জোড়া শাটলের ব্যবস্থা করেছে প্রশাসন।

শাটলগুলো নগরীর বটতলী থেকে সকাল ৬টা, সাড়ে ৬টা, সোয়া ৮টা, পৌনে ৯টা, ১১টা ৪০ মিনিট, দুপুর ১২টা, বিকেল ৩টা, বিকেল ৪টা এবং সর্বশেষ ট্রেন রাত সাড়ে ৮টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে।

এছাড়াও ক্যাম্পাস থেকে সকাল ৭টা ৫ মিনিট, ৭টা ৩৫ মিনিট, ৯টা ২০ মিনিট, ১০টা, দুপুর ১টা, দুপুর দেড়টা, বিকেল ৩টা, ৫টা, সাড়ে ৫টা এবং রাত ৯টা ১০ মিনিটে সর্বশেষ ট্রেন শহরের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে।

ট্রেনগুলো ঝাউতলা স্টেশন, ষোলশহর, ক্যান্টনমেন্ট, চৌধুরীহাট এবং ফতেয়াবাদ স্টেশনে কিছুক্ষণের জন্য থামবে।

সংবাদ সম্মেলনে চবি প্রক্টর অধ্যাপক ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়া বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তাকে পাঁচ স্তরে সাজানো হয়েছে। যাতে ভর্তিচ্ছুরা এবং তাদের অভিভাবকরা বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে কোনরকম সমস্যায় না পড়েন এবং নিরাপদে বাড়ি ফিরে যেতে পারেন। পাশাপাশি যাতায়াতের জন্য শাটল ট্রেনের ট্রিপ বাড়ানো হয়েছে, মহিলা অভিভাবকদের জন্য চারটি ছাত্রী হলেই বিশ্রামাগার প্রস্তুত করা হয়েছে। এছাড়াও যেকোন সমস্যায় প্রক্টরিয়াল বডি সবসময় প্রস্তুত রয়েছে।

এসএ