শুক্রবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২২

| ২৫ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

KSRM
মহানগর নিউজ :: Mohanagar News

প্রকাশের সময়:
১৬:০৯, ২৯ জুলাই ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক

আটকের আগে যা বললেন সেই গেটম্যান

প্রকাশের সময়: ১৬:০৯, ২৯ জুলাই ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক

আটকের আগে যা বললেন সেই গেটম্যান

চট্টগ্রামে ট্রেন ও মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে ১১ জন পর্যটক নিহতের ঘটনার সময় গেটবার ফেলা হয়েছিল বলে দাবি করেছেন দায়িত্বরত গেটম্যান সাদ্দাম হোসেন। তিনি বলেন, দুর্ঘটনার সময় ট্রেন ও মাইক্রোবাসটি ডাউনলাইনে ছিল, নিয়ম অনুযায়ী তিনি আপলাইনে দাঁড়িয়ে ছিল। সেখান থেকে ট্রেন আসার সংকেত দেওয়া হলেও তা মানেন নি মাইক্রোবাসচালক। 

শুক্রবার (২৯ জুলাই) বিকেলে আটক হওয়ার আগে মহানগর নিউজকে এ কথা জানান গেটম্যান সাদ্দাম হোসেন। 

দুর্ঘটনার সময় তিনি গেটে ছিলেন না- স্থানীয়দের এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে সাদ্দাম হোসেন মহানগর নিউজকে বলেন, ‘দুর্ঘটনা ঘটে ১টা ৪০ থেকে ৪৫ মিনিটের মধ্যে। তখন ডাউনলাইনে মহানগর প্রভাতী ট্রেনটি আসছিল। সংকেত পেয়ে আমি গেট নামিয়ে দিই। তখন আপলাইনে দাঁড়িয়ে মাইক্রোবাসটিকে ট্রেন আসার সংকেত দিই।  কিন্তু সংকেত না মেনে মাইক্রোবাসটি রেল লাইনের উঠিয়ে দেয়। ওই গাড়িটি যখন রেললাইনে উঠে পড়ে তখন ট্রেন আসতে দেখে চালক প্রথমে সামনে আসার চেষ্টা করে, পরে পেছনে দেয়। কিন্তু ওই সময়ে গাড়িটি রেললাইনে আটকে যায়। তখনই এ দুর্ঘটনা ঘটে।’

মহানগর নিউজের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘ট্রেন ও মাইক্রোবাস দুটি ডাউন লাইনে ছিল। নিয়ম অনুযায়ী আমি আপলাইনে দাঁড়িয়ে মাইক্রোবাসটিকে না আসার জন্য সংকেত দিই। কিন্তু চালক সেটা মানে নি। আমার কি করার আছে? আমার দোষ থাকলে আমি পালিয়ে যেতাম। কিন্তু আমি পালাবো না। তবে একটু নিরাপদ দুরত্বে আছি।’

এদিকে, ট্রেনের ধাক্কায় মাইক্রোবাসের ১১ যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও ৫ জন গুরুতর আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। ১৭ জনের গ্রুপটি চট্টগ্রামের হাটহাজারীর একটি কোচিং সেন্টার থেকে মিরসরাইয়ের খৈয়াছড়া ঝরনায় বেড়াতে গিয়েছিল বলে জানা গেছে। 

এ দুর্ঘটনার জেরে ৫ সদস্যের বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল। এতে আহ্বায়ক করা হয়েছে চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা (ডিটিও) মো. আনসার আলীকে।  

কমিটির বাকি সদস্যরা হলেন- বিভাগীয় নির্বাহী প্রকৌশলী-১ আবদুল হানিফ, বিভাগীয় মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার (লোকো) জাহিদ হাসান, রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর কমান্ড্যান্ট রেজুয়ানুর রহমান এবং বিভাগীয় মেডিকেল অফিসার (ডিএমও) মো. আনোয়ার হোসেন।  

চট্টগ্রাম বিভাগীয় তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক ও ডিটিও আনসার আলী বলেন, এই দুর্ঘটনা কীভাবে ঘটেছে, কারা দোষী সে বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরা হবে। যত দ্রুত সম্ভব রিপোর্ট জমা দেওয়া হবে।

এপি/এসএ